ভালো থাকার মূলকথা - সুনিদ্রা ও সুচিন্তা

ঘুম নেই, বিশ্রাম নেই - শুধু কাজ আর কাজ। ক্লান্ত শরীর নেতিয়ে পড়েছে, অবসন্ন মনে কিছুই ভালো লাগছে না - তবু পরের দিনের কাজের চিন্তায় ঘুমও আসছে না ঠিক করে। এমন অনেক সপ্তাহ বা মাস নিশ্চয়ই পার করেছেন। ব্যস্ততা আর বিশ্রামের সঠিক ভারসাম্য বজায় রাখতে না পারলে, নিজেকে ইতিবাচক প্রেরণা দিতে না জানলে এর প্রভাব পড়ে আমাদের সমগ্র জীবনে। তাই যে বিষয়গুলো একটি স্বচ্ছন্দ গতিশীল জীবনযাপনের জন্য বোঝা জরুরী আসুন দেখে নেই -

  • স্ট্রেস- মানুষ মাত্রই জীবনে স্ট্রেস থাকবে। হোক তা সামাজিক, পারিবারিক বা মানসিক কারণে, দিনের পর দিন জমে ওঠা উদ্বেগ - উৎকণ্ঠার ছাপ এসে পড়ে আমাদের দেহে ও মনে। ফলাফল ঘন ঘন মাথাব্যথা, খিটখিটে মেজাজ, দুশ্চিন্তা, অযথা বিরক্তিবোধ ইত্যাদি। এ থেকে হতে পারে অনিদ্রা, এমনকি উচ্চ রক্তচাপ, স্থূলতা, হতাশা, ডায়াবেটিস এবং হৃদরোগের মত সমস্যা। স্ট্রেসের প্রভাব থেকে রেহাই পেতে রিলাক্স করতে শিখুন। নিয়মিত মেডিটেশন অথবা ব্যায়াম করুন। মাঝে মাঝে রোজকার রুটিনমাফিক কাজ ছেড়ে পরিবার ও বন্ধুদের সাথে কোথাও থেকে ঘুরে আসুন।

  • ঘুম- পর্যাপ্ত ঘুম যে আমাদের জন্য কতটা জরুরী তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এটি মেটাবলিজম ঠিক রাখে এবং দেহঘড়ির সঠিক ছন্দ বজায় রাখতে সাহায্য করে। শুধু শারীরিক নয়, মানসিক স্বাস্থ্যের জন্যেও সুনিদ্রা অপরিহার্য। আমাদের কর্মদক্ষতা ও স্মৃতিশক্তির উন্নয়ন ঘটায় ভালো ঘুম। স্থূলতা, হৃদরোগ, ডায়াবেটিস, হতাশা, দুশ্চিন্তা ইত্যাদি অনেক রোগের চিকিৎসায় একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হচ্ছে পর্যাপ্ত ঘুম নিশ্চিত করা। তাই রাতের ঘুমে ব্যাঘাত ঘটে এমন কোন কাজ করবেন না। সঠিক খাদ্যাভ্যাস, হালকা বই পড়া, গান শোনা, কুসুম গরম পানিতে গোসল করা - এ অভ্যাসগুলো আপনাকে একটানা গভীর ঘুম এনে দিতে সাহায্য করবে।

  • ইতিবাচক ভাবনা- ভালো থাকতে হলে ভালো ভাবুন। নিজেই হোন নিজের প্রেরণা, যে কোন নেতিবাচক চিন্তা, হতাশা এগুলো থেকে দূরে থাকুন। স্ট্রেসের কালো ছায়া থেকে বেরিয়ে আসুন মনের জোরে। আর আমরা যেহেতু সামাজিক জীব তাই একা এ কাজটি করা আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। ইতিবাচক চিন্তা করেন এমন মানুষজনের সান্নিধ্যে থাকুন, ভালো বই পড়ুন, আর নিজেকে ও চারপাশের সবাইকে আনন্দে ভরিয়ে রাখুন।

মোট কথা, আপনার উপর স্ট্রেসকে জয়ী হতে দেবেন না। সহজভাবে দৈনন্দিন প্রতিকূলতাকে মোকাবেলা করুন, সবসময় পজেটিভ ভাবুন। তবেই জীবন হয়ে উঠবে উপভোগ্য।

 


১০৬০ বার পড়া হয়েছে জুলাই ১১, ২০১৭


১০৬০ বার পড়া হয়েছে


agency_content's picture

লিখেছেন টনিক

ভালো থাকতে ছোট বড় সব চেষ্টায় আপনার পাশে আছি আমরা। টনিক।

সংশ্লিষ্ট প্রশ্ন

উত্তর দেখুন
 
লোডিং...

টনিক ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন

আজই টনিকের সকল সাধারণ ফিচার উপভোগ করুন

আপনার গ্রামীণফোন নাম্বারটি প্রদান করুন

০১৭ -

Top