কাজের সময় অবসাদ আর নয়

“কোন কাজের জন্য মনের বলই আসল” বলে একটা প্রচলিত কথা আছে। তবে মনের সাথে সাথে শরীরের শক্তি আর সামর্থ্যের যে একেবারেই প্রয়োজন নেই তা কিন্তু না। বরং কাজ করতে গিয়ে একসময় শরীরে ক্লান্তি আর অবসাদ ভর করে। বিশেষত মধ্য বয়স থেকে বয়স যত বাড়তে থাকে ততই দেখা দেয় এ সমস্যা। অবসাদ আসতে পারে শরীর কিংবা মনে। দুই ক্ষেত্রেই এর প্রভাব পড়ে কাজ এবং জীবনযাত্রায়। তাই এই অবসাদ আর ক্লান্তিকে দূরে রাখতে মেনে চলতে হবে কিছু নিয়ম।

১।পর্যাপ্ত পরিমাণে রাতের ঘুম মনকে রাখে সতেজ, মস্তিষ্ককে রাখে চাপমুক্ত। এছাড়াও দিনের মাঝখানে ১৫-২০ মিনিটের একটা ন্যাপ শরীরকে চাঙ্গা করে তুলতে পারে অনায়াসে।

২।পটাশিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এধরণের খনিজ ইলেক্ট্রোলাইট শরীরকে কর্মক্ষম করে তোলে। বাদাম, কলা ইত্যাদি হালকা নাস্তা শরীরে এসবের যোগান দেয়।

৩।শরীর ক্লান্ত হয়ে উঠলে আড়মোড়া ভাঙ্গা, নিজ ডেস্ক থেকে উঠে হাঁটা বা সহকর্মীদের সাথে গল্প করলে অবসাদবোধ কিছুটা কেটে উঠে।

৪।ফাইবার তথা আঁশ জাতীয় খাবার শরীরের জন্য বেশ উপকারি। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় তাই এসব রাখা।

৫।বেশি ক্লান্ত লাগলে শরীরকে দ্রুত সতেজ ও প্রাণবন্ত করতে পারে কার্বোহাইড্রেট, বিশেষ করে গ্লুকোজ। তাই গ্লুকোজ বা কার্বোহাইড্রেট সম্বলিত খাবার ও পানীয় শরীরের অবসাদ দ্রুত কাটিয়ে উঠতে সাহায্য করে।
 

টনিক ‘সুস্থ ঈদ সুন্দর ঈদ’ কন্টেস্টে অংশ নিয়ে জানিয়ে দিন ঈদে আপনার সুস্থ থাকার প্ল্যান আর জিতে নিন “Xiaomi Mi Band 2”

২১৮৭ বার পড়া হয়েছে সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৭


২১৮৭ বার পড়া হয়েছে


agency_content's picture

লিখেছেন টনিক

ভালো থাকতে ছোট বড় সব চেষ্টায় আপনার পাশে আছি আমরা। টনিক।

সংশ্লিষ্ট প্রশ্ন

উত্তর দেখুন
 
লোডিং...

টনিক ফ্রি সাবস্ক্রাইব করুন

আজই টনিকের সকল সাধারণ ফিচার উপভোগ করুন

আপনার গ্রামীণফোন নাম্বারটি প্রদান করুন

০১৭ -

Top