আমাদের সমাজের অনেক ভুল-ভ্রান্তির মধ্যে অন্যতম একটি চর্চা হলো তরুণ বয়সে স্বাস্থ্যকে গুরুত্ব না দেয়া। যদিও আমাদের দেশের তরুণ সমাজ পশ্চিমা বিশ্বের জীবনযাপন অনেক বেশি ফলো করে, তবুও তারা একদিকে পিছিয়ে আছে- স্বাস্থ্য সচেতনতা।

নিয়ম মেনে খাদ্যগ্রহন ও জীবনযাপন করা শুধু বয়স বাড়লেই মানতে হবে এমন কোনো কথা নেই। ২০ বছরের পর থেকেই নিজের প্রতি যত্ন নেয়া বাড়াতে হবে। এতে শারীরিক ফিটনেস ঠিক থাকার সাথে, চেহারায় বয়সের ছাপ পড়া পিছিয়ে যায় এবং স্ট্যামিনা বাড়ে।

আজকাল তরুণ-তরুণীরা ফাস্টফুড খেয়েই দিন পার করে। সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠা বা পাঁচ মিনিট হাঁটতেও কষ্ট হয়। এসব অভ্যাস বদলে ফেলার এখনই সময়।

ফাস্টফুড আর কোল্ড ড্রিংকস খাওয়া বাদ দিয়ে এখন থেকে বেশি ফলমূল সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া শুরু করুন। আপনার বয়স ও ওজন অনুযায়ী কি খাবার কতটুকু খাওয়া উচিত না বুঝলে একজন পুষ্টিবিদের অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিন টনিক অ্যাপ দিয়ে।

যদি দেখেন ৫ মিনিট হাঁটলেও হাঁপিয়ে উঠছেন তাহলে বুঝবেন আপনার স্ট্যামিনা অনেক কম। কিন্তু যদি হাঁটলে অন্য কোনো স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দেয় তাহলে এ ব্যাপারে একজন অভিজ্ঞ টনিক ডাক্তারের সাথে কথা বলুন বা চ্যাট করুন। অন্যথা প্রতিদিন হাঁটার অভ্যাস করা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ভালো। এটি একদিকে দৈহিক শক্তি বৃদ্ধি করে, অন্যদিকে মানসিক ভাবে রাখে প্রফুল্ল।

agency_content's picture
লিখেছেন
টনিক
Tonic is there to assist you no matter how big or small your problems may be